Sunday , October 2 2022
Home / চুলের যত্ন / চুলকে লম্বা ও ঘন চুল পেতে এবং চুলের যত্নে মধুর সেরা কিছু উপকারিতা!

চুলকে লম্বা ও ঘন চুল পেতে এবং চুলের যত্নে মধুর সেরা কিছু উপকারিতা!

মধু চুলে ব্যবহার করলে চুল পড়ে যাবে না তো ?

মধু দিয়ে কিভাবে চুলের যত্ন !!

এমন প্রশ্ন যদি আপনার মনে আসতেই পারে, তাহলে আসুন জেনে নি।

মধুকে আমরা, মিষ্টি জাতীয় খাবার হিসেবে চিনি। সুস্বাস্থ্যের জন্য আর খাবারের স্বাদ বাড়াতে, চায়ের সাথে আনেকেই মধু ব্যাবহার করেন।

মৌমাছি ঘুরে ঘুরে ফুলের রেণু হতে মধু সংগ্রহ করে। প্রাচীন কাল থেকে মধুর বিভিন্ন উপকারিতার কারণে চুলের যত্নে এটি ব্যবহার হয়ে থাকলেও, এ কথা অনেকেই জানেন না।

তাই, চুলকে লম্বা ও ঘন করতে মধু অসাধারণ একটি প্রাকৃতিক উপাদান হওয়া সত্বেও চুলের যত্নে মধুর উপকারিতা নিয়ে নানান প্রশ্ন মাথায় আসতেই পারে!

মধু চুলের নানা ধরণের সমস্যার সমাধান করে যেমন এটি মাথার তালুর ত্বকের স্বাস্থ্য রক্ষা করে। চুলকে লম্বা হতে সাহায্য করে এবং চুলকে সুন্দর করে তুলে ।

এছাড়াও মধুর আরো অনেক উপকারিতা আছে, এর মধ্য হতে আমি আপনাদের সাথে মধুর সেরা কিছু উপকারিতার কথা তুলে ধরছি ।  

মধু নতুন চুল গজাতে সাহায্য করেঃ

মাথার তালু যদি সুস্থ্য হয় তাহলে মাথায় নতুন চুল গজানো সম্ভব। মধুর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা চুলের ডেমেজকে প্রতিরোধ করে এবং চুলের গোড়া ও মাথার তালুকে সুস্থ্য করে তুলে । যার ফলে মাথায় নতুন চুল গজাবে এবং চুল লম্বা হবে!

চুলকে খুশকি মুক্ত রাখেঃ

খুসকি চুল পরার অন্যতম কারন, মাথার তালুর মধ্যে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমিত হলে খুশকি হয়! মধুর মধ্যে যে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি-ফাঙ্গাল প্রোপার্টি রয়েছে, এই প্রোপার্টিগুলো ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে মাথার তালুকে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করে চুলকে খুশকি মুক্ত রাখে । তার ফলে মাথার তালু হেলদি থাকে আর চুল সুস্ত থাকে!

চুলকে কন্ডিশন করবেঃ

চুলের জন্য মধুকে প্রাকৃতিক কন্ডিশনার বলা হয়ে থাকে! মধু চুলকে প্রাকৃতিক ভাবে কন্ডিশনিং করে চুলকে নরম ও সিল্কি বানায়!

কিভাবে বাসায় বানাবেন মধুর হেয়ার মাস্ক?

ড্রাই, ডেমেজ চুলের জন্য

১/২ কাপ মধু

১/৪ ওলিভ অয়েল

১ টি বাটি

১ টি পরিষ্কার ব্রাশ (না থাকলে আসুবিধা নেই)

প্রথমে মধু এবং অলিভ অয়েল মিক্স করে বাটিতে মিশিয়ে নিতে হবে। মিক্সটি ২০ সেকেন্ড মাইক্রো ওয়েভ করে একটা চামুচ দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর কিছটা ঠান্ডা করে নিয়ে আঙ্গুল বা পেইন্ট ব্রাশের সাহায্যে চুলের সামনে থেকে পেছনে নিয়ে নিতে হবে।

এটি আপনার চুলকে ময়েস্ট যোগাবে, চুল ভাঙা কমাবে! চুলের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনবে, চুল নরম করবে!

চুলের জন্য মধুর এতো দারুন দারুন উপকারিতা গুলো জানার পর এবার থেকে নিশ্চয় চুলকে লম্বা ও ঘন করার জন্য এবং চুলের যত্নে মধু ব্যবহার করবেন!

লেখা: মিথিলা আলী। ছবি: শাটারশক

About author

Leave a Reply

Your email address will not be published.